Skip to main content

YouTube Video Optimization কি এবং কিভাবে করবেন


গুগলের সার্চ রেজাল্টে কোনও ওয়েবসাইট বা নির্দিষ্ট পেজকে প্রথমে আনতে চাইলে যেমন সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন বা ‍SEO করতে হয় ঠিক তেমনি ইউটিউবের সার্চ রেজাল্টে কোনও ভিডিও কে প্রথমে আনতে হলেও SEO করতে হয় আর ইউটিউবের জন্য তা হল  Video optimization । আপনার চ্যানেলের জন্য Video Topics সিলেক্ট করার পর প্রথম কাজ থাকে Video optimization।

video optimization
Image by Technology Part

ইউটিউব Video Optimization এর  জন্য যে বিষয়গুলো প্রথমে থেকে শেষ পর্যন্ত করতে হবে তা আমি ধাপে ধাপে সুন্দর ভাবে আলোচনা করেছি। লেখাটা শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন এবং বুঝতে চেষ্টা করুন।

ইউটিউব Video Optimization এর ধাপগুলো নিম্নে তুলে ধরা হল


Relevant Keywords

video optimization
Image by Technology Part

একটি Website এর Keywords এর মত একটি Video র ও কিছু Relevant Keywords থাকে আর এগুলো সবচেয়ে বেশী গুরুত্বপূর্ন্ । আর একটা ভিডিওর জন্য একটা Main বা Primary Keywords থাকে আর প্রাইমারী কিওয়ার্ড আপনার Video Title এ বসাতে হবে এবং এই কিওয়ার্ড টাই ইউটিউব Search এর প্রথমে সো করবে। আর এই প্রাইমারী কিওয়ার্ড টাই হল Target Keyword । আর ২য় Keywords হল Secondary Keywords যেখানে কয়েকটি Keyword থাকে আর যে কিওয়ার্ড গুলো আপনাকে  Video Description এবং Video Tag  এ ইউজ করতে হবে। আর Video optimization এর ক্ষেত্রে Keyword খুবই গুরুত্বপূর্ন্ ভুমিকা রাখে।

Video Title

video optimization
Image by Technology Part

একটি Video এর Title এ  Target Keyword বা Main Keyword দেওয়া জরুরী।  যা আমি উপরে আলোচনা করেছি। Title ভিডিও টপিকস এর বাইরে বা অপ্রাসঙ্গিক কোন বিষয় দিয়ে Visitor কের বিভ্রান্ত করা যাবে না। মেইন Keyword দিয়ে Title শুরু করা ভাল । আর টাইটেল দেখেই যেন বুঝা যায় আপনার ভিডিওতে কি নিয়ে আলোচনা করেছেন।  কোন ধারাবাহিক বা সিরিজ ভিডিওতে টাইটেল এর শেষে পর্ব্ -০১  এভাবে দিতে পারেন। এতে যখন কেউ ভিডিও দেখবে তখন Suggested ভিডিও হিসেবে আপনার আগের এবং পরের পর্ব্ গুলো সাইডে সো করবে। নিচে SEO Friendly Title এর একটা উদাহরন দিচ্ছি। যেমন ধরুন আপনার মেইন Keyword হল ‘windows tips’ তাহলে আপনার টাইটেল এভাবে বসাতে পারেন।

  • Windows Tips and Tricks for Microsoft User
  • Windows Tips : Windows 10 Tips and Tricks for New User

এই দুই ভাবে আপনি টাইটেল লিখতে পারেন।

Video Tag

video optimization
Image by Technology Part

Relevant Keyword বা  সেকেন্ডারী কিওয়ার্ড দিয়ে আপনার Tag ইউজ করতে পারেন। । ট্যাগগুলো এমন ভাবে ইউজ করবেন ইউটিউব যেন বুঝতে পারে  যে এইটা কিসের ভিডিও। আর রিলিভেন্ট ট্যাগ ইউজ করলে আপনার ভিডিওটি রিলিভেন্ট অন্য ভিডিওত সাজেস্টেট ভিডিও হিসেবে পাশে Show করবে । তবে Tag ভিডিও রেঙ্কিং এর ক্ষেত্রে তেমন উপকৃত হয় না। ট্যাগ শুধুমাত্র Suggested Video তে Show করার জন্য ব্যবহার করা হয়।

Video Description

video optimization
Image by Technology Part

ভিডিও Ranking ও Video Optimization এর আরেকটি Important Part হল   ভিডিও Description খুবই জরুরী। সাধারনত ভিডিও Description ৩০০+ শব্দের হলে ইউটিউব তা বেশী প্রাধান্য দিয়ে থাকে। Description হতে হবে সম্পূর্ন্ ইউনিক আর সাজানো। কোনভাবেই কপিরাইট লেখা ভিডিও ডেসক্রিপশনে ব্যবহার করা যাবে না।ভিডিও Description এ ০.৫% মেইন কিওয়ার্ড ইউজ করতে হবে। যেমন আপনার  Descripiton যদি ১০০০ শব্দের হয় তাহলে কমপক্ষে ৫ বার আপনার মেইন Keyword বা Target Keyword ব্যবহার করতে হবে।  অনেকেই ডেসস্ক্রিপশনে ট্যাগ ইউজ করেন এই কাজটি করা যাবে না। তবে আপনি ট্যাগগুলো Sentence হিসেবে লিখতে পারেন।

Video Thumbnail

video optimization
Image by Technology Part

Video Optimization এর জন্য Custom ভিডিও থাম্বনেল খুবই জরুরী। সুন্দর ও কাস্টম থাম্বনেল একটি ভিডিও’র Impression তৈরী করে। ভিডিও আপলোড এবং ভিডিও প্রসেসিং হওয়ার পর ইউটিউব সয়ংক্রিয়ভাবে  ভিডিও থেকে ৩টি স্ন্যাপ নিয়ে থাম্বনেল সাজেস্ট করে তবে সবসময় কাস্টম থাম্বনেলকে ইউটিউব Ranking এর জন্য গুরুত্ব দিয়ে থাকে।

Video ট্রান্সক্রিপ্ট

ভিডিও করাতে ট্রান্সক্রিপ্টের গুরুত্ব আছে। সবচেয়ে ভাল Keyword গুলো দিয়ে ভিডিও ট্রান্সক্রিপ্ট তৈরী করতে হয়।

Channel Authority

ইউটিউব চ্যানেল অথরিটি Video Ranking এর ভূমিকা রাখে। Channel Authority বলতে ভিডিও ভিউ এর সাথে সাথে Viewer দের Engagement বৃদ্ধি, Subscriber, Website ও Social Media তে চ্যানেল ও ভিডিও Linking কে বুঝায়। 

High Retention Views

ইউটিউবে কতজন মানুষ আপনার ভিডিও দেখলো আর ভিডিও কত সময় ধরে দেখলো সেটা অনেক জরুরি। হাই রিটেনশন ভিউ  মূলত ভিডিওর Total লেন্থের অন্তত ৫০%-৬০% পর্যন্ত দেখাকে বুঝায়। আর হাই রিটেনশন ভিউস Video Optimize এর জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ন্ ভূমিকা রাখে। আপনার চ্যানেলে দেখেবেন অডিয়েন্স রিটেনশন একটা অপশন আছে সেখানে দেখতে পারবেন আপনার কোন ভিডিওটি কত % দেখেছে।

Video Comments

video optimization
Image by Technology Part

ভিডিও রেঙ্ক , চ্যানেল অথরিটি বাড়াতে এবং video optimize করতে কমেন্ট অনেক গুরুত্বপূর্ন্ একটা বিষয়। একটি ভাল ভিডিওতে অনেক পজেটিভ কমেন্ট থাকে আর পজেটিভ কমেন্ট এর মানে হল ভিউয়াররা আপনার ভিডিওটিকে গুরুত্ব দিয়েছে। কোনও ভাল কমেন্টে ধন্যবাদ কিংবা কারো প্রশ্নের উত্তর দিয়ে এঙ্গেজমেন্ট বাড়ানো Ranking এর জন্য গুরুত্বপূর্ন্। আবার অনেকেই দেখেবেন আপনার ভিডিওতে অনেকেই স্প্যামিং কমেন্ট করে যা Likely Spam নামে সেভ হয়ে থাকে যা আপনি ডিলিট করে দিবেন।  আবার নিজে কখনও  আপনার ভিডিওতে বারবার কমেন্টস করবেন না এবং স্প্যামিং করবেন না। কারন স্প্যামিং এর কারনে অনেকের চ্যানেল সাসপেন্ড হয়ে থাকে। আমার চ্যানেলে স্প্যামিং নিয়ে একটা ভিডিও আছে দেখে নিতে পারেন। ভিডিও ডেসক্রিপশনে ভিডিও লিংক দেওয়া আছে।

Subscribers

কোন ভিউয়ার আপনার ভিডিওটি পছন্দ করলে এই রকম ভিডিও পেতে আপনার চ্যানেল Subscribe করে রাখবে। আর সাবস্ক্রাইবার যত বাড়তে থাকে আপনার চ্যানেলের গ্রেড ও রেঙ্কিং ও বাড়তে থাকবে।

ফেভারিটস

ভিডিও Ranking এর অন্যতম Fact হচ্ছে কতজন মানুষ ভিডিওটি ফেভারিট করলে আর ‘Watch Later’ List এ অন্তর্ভূক্ত করলো। যখনই একটা ভিডিও কোন ভিউয়ারের কাছে ভাল লাগবে তখনই সেই ভিউয়ার ভিডিওটি ফেভারিট ও ওয়াচ লেটার করে রাখবে।

Like/Dislike

video optimization
Image by Technology Part

Video optimize  এর আরেকটি Important অংশ হল লাইক ও ডিসলাইক। ভিডিও লাইক বা ডিসলাইকের উপর ভিডিও রেঙ্ক অনেকটা নির্ভর করে। কেউ যদি আপনার ভিডিও পছন্দ করলে লাইক বা থাম্বস আপ দিবে আর বিরক্ত হলে, অপছন্দ করলে ডিসলাইক দিবে বা থাম্বস ডাউন দিবে। অনেকেই প্রশ্ন করেন একটা ভিডিওতে ডিসলাইক অনেক বেশী এবং লাইক অনেক কম তাও সেই ভিডিওটি রেঙ্ক হয়েছে। YouTube আসলে লাইক বা ডিসলাইক কাউন্ট করে না। ইউটিউব দেখে User Engagement তাই লাইক বা ডিসলাইক মিলে কতজন ইউজার আপনার ভিডিওতে এঙ্গেজ হয়েছে তা দেখে ভিডিও রেঙ্ক করে। তাই আপনার চ্যানেল বা ভিডিও’র হেটারদের আপনার অপছন্দের কোন কারন নেই তারাও আপনার ভিডিও রেঙ্ক এর ক্ষেত্রে ভাল ভূমিকা পালন করে।

Backlinks

ইনবাউন্ড লিংক সমূহকে ইউটিউব ব্যাকলিংকস হিসেবে গণ্য করে। মানে হল অন্য কোন ওয়েবসাইট কতজন ভিউয়ার আপনার চ্যানেলে আসছে আর কতগুলো ওয়েভসাইটে আপনার চ্যানেলের লিংক আছে। তবে ব্যাকলিংকগুলো অবশ্যই রিলেভেন্ট সাইট  থেকে  হতে হবে। Relevant Backlinks  Youtube Channel or Video  Rank এর জন্য উপকারী।

Social Sharing and Embeds

video optimization
Image by Technology Part

ইউটিউব ভিডিও রেঙ্ক এর ক্ষেত্রে বিভিন্ন Social Media site যেমন  Facebook, Twitter, LinkedIn, Tumbler, Pinterest  এগুলোতে শেয়ার করতে পারেন। আপনি যখন একটা ভিডিও প্লে করেন তখন ভিডিও’র নিচে দেখবেন Share নামে একটা বাটন আছে সেখানে ক্লিক করলে দেখবেন জনপ্রিয় কিছু সোস্যাল মিডিয়া সাইটের লগো দেখেবেন এগুলোতে আপনি একাউন্ট করে তাতে শেয়ার করতে পারেন। ওয়েবসাইট বা Blog পোস্টে ভিডিও Embeds করতে পারেন। এবং এগুলো ভিডিও রেঙ্ক এর ক্ষেত্রে অনেক গুরুত্বপূর্ন্ ভূমিকা পালন করে।

সবশেষে আমি খুবই জরুরী এবং গুরুত্বপূর্ন্ কথা বলব এবং যে কাজগুলো ভুলেও করা যাবে না।

  • অন্য কারো ভিডিও ডাউনলোড করে সেটা আপলোড করা যাবে না।
  • কোন কপিরাইট ভিডিও আপলোড বা পাবলিশ করা যাবে না।
  • ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করার পর নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে নিজে বারবার দেখে ভিউ বাড়ানো যাবে না। তাতে চ্যানেল সাসপেন্ড হওয়ারও সম্ভবনা আছে।
  • আপনার নিজের ভিডিওতে লাইক বা ডিসলাইক দেওয়া ঠিক না।
  • কখনও ভিডিও ভিউ, লাইক, কমেন্টস ও সাবস্ক্রাইবার কিনবেন না বা অটো জেনারেটেড কোন সাইট থেকে কখন ভিউ বা সাবস্ক্রাইবার নিবেন না। তাতে চ্যানেল সাসপেন্ড হওয়ার বেশী।

 আশা করি পোষ্টটি উপকারে আসবে। ইউটিউবে যারা নতুন বা যারা পুরাতন সবার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটের পোষ্টগুলো গুরুত্বপূর্ন্। আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে নিয়মিতভাবে পোষ্ট করে যাচ্ছি। আশা করি সাথেই থাকবেন।


পোষ্টটি সবার সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না। কোন প্রশ্ন বা পরামর্শ্ থাকলে মন্তব্য করতে পারেন। আপনাদের প্রশ্নের উত্তর ও মতামত সাদরে গ্রহন করব।



Please Subscribe our Technology Related YouTube Channel



Alamin Rahman

I am Alamin Rahman From Dhaka, Bangladesh. I am Professional Amazon Affiliator, Database Specialist and YouTube Content Writer. I am also IT Professional of Government of the people Republic of Bangladesh

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *