Skip to main content

YouTube Community Guideline কি ? বিস্তারিত আলোচনা


youtube community guideline
Image by Technology Part

YouTube Community Guideline খুবই বড় একটা বিষয়। অনেকেই মনে করেন যে, আমার YouTube Channel এ কোন Copyright ভিডিও ছিল না কিন্তু তারপরেও আমার চ্যানেলে কেন কমিউনিটি গাইডলাইন ‍Strick  এসেছে বা কমিউনিটি গাইডলাইন ইস্যুতে আমার চ্যানেলে সাসপেন্ড হয়েছে ? এই প্রশ্নটা আমার না। অনেকেই এই প্রশ্নটা করে থাকেন বা অনেকেই এই উত্তরটা জানেন না। আজ আলোচনা করব YouTube Community Guideline কি এবং কেন কমিউনিটি গাইডলাইনের কারণে Channel Suspended হয়। আশা করি পোস্টটি শেষ পর্যন্ত পড়ে দেখবেন।


আগের পোষ্টগুলোতে আমি YouTube এর বেসিক আলোচনা করেছি। কিভাবে Video Topics সিলেক্ট করবেন তা নিয়ে আলোচনা করেছি। আরো আলোচনা করেছি Video optimize সহ অনেকগুলো বিষয়ে। যারা পোস্টগুলো এখনও দেখেননি তারা আগে ঐ পোষ্টগুলো পড়ে নিন। আশা করি উপকৃত হবেন।


YouTube Community Guideline কি?

মনে করুন আপনার একটা Facebook Group এ ৫০ হাজার মেম্বার আছে। এই ৫০ হাজার মেম্বার নিয়ে আপনার Facebook Group এর কমিউনিটি। আপনার ফেসবুক Group এর অবশ্যই কিছু নিয়ম নীতি আছে। যারা এই নিয়ম নীতি না মানে তাদের আপনি অনেক সময়  Massage দিয়ে সতর্ক করেন, আর অনেক সময় বিনা নোটিসে আপনি কিছু মেম্বারকে ব্যান করেন, আবার কেউ যদি বার বার রুলস বাইলেশন করে তাহলে আপনি কোন মেম্বারকে সারা জীবনের জন্য Group থেকে সাসপেন্ড করেন। এতক্ষন আমি শুধু বুঝানোর জন্য এই উদাহরনটা দিয়েছি। কারন ইউটিউব ও একটা কমিউনিটি।


YouTube এ ৩ ধরনের User আছে।

youtube community guideline
Image by Technology Part
  • YouTube Partner যারা ইউটিউবে তৈরী করে ও ভিডিও আপলোড করে  এবং ভিডিও থেকে Earn করে।
  • Advertisers আছে যারা ইউটিউবে তাদের কোম্পানীর প্রচারের জন্য এড দিয়ে থাকে ।
  • Viewer আছে যারা বিনোদনের জন্য   বা জ্ঞান অর্জনের জন্য শিক্ষা মূলক  ভিডিও ইউটিউবে দেখে থাকে। 

এই ৩ ক্যাটাগরির মেম্বার নিয়ে  ইউটিউবের  একটি কমিউনিটি। আর এই কমিউনিটির জন্য ও  কিছু নিয়ম  নীতি আছে, যে নিয়ম না মানলে কোন কোন সময় তারা স্ট্রাইক দিয়ে সতর্ক করে আবার কোন সময় বিনা নোটিসে Channel Suspended করে দেয় আবার অনেক সময় সারা জীবনের জন্য সাসপেন্ড  করে দেয়। YouTube কোন কাজই বিনা কারণে করে না। আমরা অনেকেই ভেবে আমার চ্যানেলে কোন কপি রাইট স্ট্রাইক ছিল না কিন্তু তাও চ্যানেল সাসপেন্ড করে দিয়েছে। তারও একটি কারন থাকে। আর যদি আপনার চ্যানেল বিনা কারনে সাসপেন্ড করে দেয় তাহলে আপিল করার পর দেখবেন আপনার কাছে বলেছে আপনার চ্যানেল সাসপেন্ড হয়েছিল তা ছিল Error। তবে এর সংখ্যা খুবই কম।


এবার আমরা আলোচনা করব কি কি কারনে কিংবা কোন কোন নিয়ম অমান্য করলে ইউটিউব কমিউনিটি গাইডলাইন স্ট্রাইক দিয়ে থাকে বা চ্যানেল সাসপেন্ড করে থাকে।


YouTube Community Guideline ৭ প্রকারের

  1. Nudity or sexual content
  2. Harmful or dangerous content
  3. Violent or graphic content
  4. Copyright
  5. Hateful content
  6. Threats
  7. Spam, misleading metadata, and scams

 

উপরের কাজগুলো করলে আপনি YouTube Community Guideline এর আওতায় পড়বেন এবং তারা আপনার বিরুদ্ধে  YouTube ব্যবস্থা নিবে। এবার আমি উপরের ৭ টি বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।


Nudity or sexual content

youtube community guideline
Image by Technology Part

YouTube এ পর্নোগ্রাফি এবং সেস্কুয়াল কনটেন্ট কখনও অনুমোদন করে না। এই ধরনের Content আপলোড করলে আপনার ভিডিওটি সরিয়ে ফেলবে বা আপনাকে কমিউনিটি গাইডলাইট স্ট্রাইক দিবে। তবে অনেকেই চিন্তা করতে পারেন এই সব ভিডিওত আছে। তারা কিভাবে আপলোড করে। ইউটিউব রুলস অনুযায়ী শিক্ষামূলক বিষয়ে আপনি এই ধরনের কন্টেন্ট আপলোড করতে পারবেন YouTube Community Guideline  এর পেইজে YouTube একটা উদাহরন দিয়েছে যে, Female ব্রেস্ট ক্যান্সার নিয়ে যদি কেউ ডকুমেন্টারী তৈরী করে তা আপলোড করতে পারবে কিন্তু ভিডিওটি  এইজ রেস্ট্রিকটেড করে রাখতে হবে। মানে হল এই ভিডিওগুলো ১৮ বছর বয়সের কম বয়সীরা দেখতে পারবে না। তাবে Age Restricted ভিডিওতে কোন Add Show করে না।


Harmful or dangerous content

youtube community guideline
Image by Technology Part

YouTube ক্ষতিকর ও বিপদজনক কোন ভিডিও আপলোডের অনুমোদন করে না।  এমন কিছু ভিডিও যে ভিডিওগুলোতে কোন ব্যাক্তি বা সমাজের  ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা আছে।  যেমন এমন কিছু  ভিডিও যা থেকে জঙ্গি, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বেড়ে যায়। কেউ যদি এমন একটা ভিডিও তৈরী করে যে কিভাবে বোমা বা গ্রেনেড তৈরী করা যায়, কিভাবে মাদক তৈরী করা যায়, চটকধার কোন গেমস নিয়ে ভিডিও  তৈরী করে যা দেখে কারো ক্ষতি হতে পারে, বা এমন আকর্ষনীয় ভিডিও তৈরী করলেন যা দেখে শিশুদের, বৃদ্ধদের ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা আছে তা করা যাবে না।


Violent or graphic content

youtube community guideline
Image by Technology Part

Violent or Graphic Content হল মারা-মারি, কাটা-কাটি খুন , হত্যার দৃশ্য, হিস্রাত্মক,  এগুলোকে বুঝায়। অর্থ্যাৎ যেসব দৃশ্যে রক্ত বা Blood সংশ্লিস্ট বিষয় আছে। যা দেখে লোকজন  বা শিশুরা অতংকিত হতে পারে। যেমন : কয়েকবছর আগে ISI নামে একটি জঙ্গি সংগঠন আমেরিকান এক সাংবাদিক কে জবাই করার একটা দৃশ্য তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছিল এবং তা অনেকেই YouTube Channel এ আপলোড করেছিল এবং এই ভিডিও আপলোড এর জন্য প্রত্যেকের চ্যানেলে কপিরাইট স্ট্রাইক এবং চ্যানেল সাসপেন্ড পর্যন্ত হয়েছে। শুধুমাত্র মানুষ হত্যা না।  কোন পশু-পাখির হত্যার ভিডিও ও প্রকাশ করা যাবে না। যেমন ২বছর আগে  কোরবানির ঈদে অনেকে গরু জবাই করার দৃশ্য ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করেছিল  তার জন্য ও অনেকের চ্যানেলে স্ট্রাইক পেয়েছিল এবং চ্যানেলে সাসপেন্ড হয়েছিল। মোট কথা হল এমন কোন Video আপলোড করা যাবে না যেসকল ভিডিও গুলো দেখে ভয় বা অতংকিত হতে পারেন। অনেকেই বলতে পারেন এইসব দৃশ্য দেখে হয়ত আপনার  আমার ভয় লাগে না। কিন্তু ইউটিউব এমন একটা কমিউনিটি যেখানে  বৃদ্ধ, শিশু ও এই কমিউনিটির সাথে যুক্ত। এই সব দৃশ্য দেখে তারা হয়ত ভয় পাবে । তাই ইউটিউব এই ধরনের ভিডিও নিষিদ্ধ করেছে।


Copyright

youtube community guideline
Image by Technology Part

কপি রাইট  বিষয়টা অনেকের জানা। কপিরাইট অনেক বড় একটা YouTube Community Guideline Rules। সংক্ষিপ্ত ভাবে বলতে গেলে অন্যের Content বা Video Copy করে আপনার চ্যানেলে আপলোড করা যাবে না। তার মানে শুধ আপনি একটা চ্যানেল থেকে ভিডিও ডাউনলোড করে আপনার চ্যানেলে আপলোড করা বুঝায় না। যেমন : বাংলাদেশের বিখ্যাত একজন শিল্পির গানের অনুষ্ঠান বা স্টেজ শোতে আপনি অংশগ্রহন করতে গিয়েছেন এবং সেই অনুষ্ঠানের দৃশ্য আপনি ক্যামেরা বা মোবাইলে ধারন করেছেন তার আপলোড করে দিলেন আপনার চ্যানেলে। অনেকেই এইটাকে কপি-রাইট মনে করেন না। কিন্তু ইউটিউবের কাছে এইটাও কপিরাইট। কারন আপনি শুধু ভিডিও ধারন করলেন কিন্তু পারফরমেন্সটা আপনার না। অথবা এটা টিভি প্রোগ্রাম আপনি রেকর্ড করে চ্যানেলে আপলোড করেছেন তাও Copyright। কারন ঐ প্রোগ্রামের Credit আপনার না। তার মানে হল কনসার্ট, টিভি প্রোগ্রাম ইত্যাদি ভিডিও করে চ্যানেলে আপলোড করা যাবে না। ইউটিউব সব সময় চায় Real Content অর্থ্যাৎ যে কন্টেন্টের একমাত্র Owner বা Performer আপনি এই ধরনের কন্টেন্ট আপলোড করতে পারবেন।


Hateful content

youtube community guideline
Image by Technology Part

Hateful Content হল আপনার এমন একটা বিষয় যেমন আপনি একটা বক্তব্য দিলেন যার দ্বারা কোন একটা জাতি, ধর্ম  বা কোন একটি দেশের প্রতি ঘৃণা প্রকাশ বা ব্যাঙ্গ করা বুঝায়। অথবা কোন একজন ব্যাক্তি আপনার বক্তব্যে কষ্ট পায়। এমন কন্টেন্ট  বা Video আপলোড করা যাবে না।  YouTube সবসময় মুক্ত চিন্তা বা মুক্ত বক্তব্যে বিশ্বাস করে কিন্তু তারপরও হেইটফুল  কন্টেন্ট আপলোড করার অনুমতি দেয় না কারন ইউটিউবে অনেক   বিভিন্ন ধর্ম, জাতি, গোষ্ঠির লোকজন এই কমিউনিটিতে আছে। তাই সকল শ্রেনীর লোকজনকে ইউটিউব Respect করে Hateful কন্টেন্ট অনুমোদন দেয় না। তবে সাবলীল ভাষায় ,অর্থবহ কোন বক্তব্য দিয়ে কোন দেশ, জাতি বা ধর্মের সমালোচনা করতে পারবেন যদি বক্তব্যে কোন অশ্লীল বা অশালীন কথা-বার্তা না থাকে। যেমন আপনি খুবই ভাল মানের একটা ভিডিও তৈরী করলেন । যে ভিডিওটি সবার জন্যই উপকারে আসবে। কিন্তু সেই ভিডিওতে দেখবেন ১০০ লাইক হলে অন্তত ৫টা হলেও ডিসলাইক পড়বে। এবং ৫০টা ভাল মন্তব্য হল ২টা হলে ভিডিও ভাল হয়নি এমন মন্তব্য আসবে। তাই আপনার পছন্দ আরেকজনের পছন্দ নাও হতে পারে বা আরেকজনের পছন্দ আপনার পছন্দ নাও হতে পারে। তাই গঠনমূলক সমালোচনা করতে পারবেন।


Threats

youtube community guideline
Image by Technology Part

Thearts হল এমন একটা YouTube Community Guideline যার দ্বারা কোন ভিডিওতে কাউকে হুমকি দেওয়া। মানে হল কেউ কোন ভিডিও তৈরী করল এবং কোন ব্যাক্তি , Group বা একটা কমিউনিটিকে হত্যা , শারিরিক, মানসিক হেরেসমেন্ট এর হুমকি  দিয়ে থাকলে এই সব ভিডিও আপলোড করা যাবে না।


Spam, misleading metadata, and scams

youtube community guideline
Image by Technology Part

Spam, misleading metadata, and scams হল খুবই গুরুত্বপূর্ন এবং অনেক বড় একটা YouTube Community Guideline Rules। শুধুমাত্র স্প্যামং,  মিসলেডিং মেটাডাটা নিয়ে এই ভিডিও দেখে নিতে পারেন। তাও এ বিষয় নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করছি।

  • Spam হল একই কাজ বারবার করা যেমন আপনি একটা Video Link বার বার এখানে সেখানে শেয়ার করছেন যা সবার কাছে পছন্দ না। যেমন একটা ট্রাভেলিং ভিডিওতে বান্দরবন কি কি দেখার আছে তা নিয়ে আলোচনা করছেন কিন্তু  কমেন্টে আপনি আপনার ইউটিউব নিয়ে তৈরী করা ভিডিও লিংক পোষ্ট করছেন বা সবাই মন্তব্য করছে কিভাবে ঢাকা থেকে বান্দরবন যাবেন কিন্তু আপনি মন্তব্য করছেন YouTube থেকে আয় কিভাবে করবেন । এই ধরনের কাজকেই বলে স্প্যাম।
  • Misleading Metadata Spam এরই একটা অংশ যেমন, আপনি অন্যের টাইটেল,ডেসক্রিপশন বা ট্যাগ  কপি করে আপনার ভিডিওতে বসিয়েছেন। বা আপনি এমন একটা টাইটেল দিলেন যা আপনার Video Topics এর বাইরে। ডেসক্রিপশনে আপনি ট্যাগ বসিয়ে দিলেন এইটাও মিসলেডিং মেটা ডাটা। ট্যাগগুলো আপনি ডেসক্রিপশনে use করতে পারবেন কিন্তু তা Sentence  আকারে ইউজ করতে হবে।
  • Scam হল কাউকে লোভ দেখানো বা কাউকে লোভ দিখিয়ে আপনার ভিডিওটি দেখানো।  অর্থ্যাত কিছু ভিডিও টাইটেলে দেখা যায় কিভাবে আপনি প্রতি সপ্তাহে ১০০০ ডলার আর্ন করবেন কিন্তু ভিডিওতে দেখা গিয়েছে সে আপওয়ার্কে কিভাবে রেজিস্ট্রেশন করা হয় তা নিয়ে আলোচনা করছে বা এমন আকর্ষনিয় টাম্বনেল ইউজ করছে যা নিয়ে আসলে আপনার ভিডিওতে কোন আলোচনা নেই এগুলোই হল Scam। আর Spam, misleading metadata, and scams এর কারনেই বেশীরভাগ চ্যানেল সাসপেন্ড হয়।

তাই সবাই Real ভাবে কাজ করুন। যারা ইউটিউব কে Professional হিসেবে কাজ করতে চান তারা সবার আগে যে বিষয়টা চিন্তা করবেন তা হল, আপনি যে বিষয়টা আপনি খুবই ভাল জানেন তা নিয়ে ভিডিও তৈরী করুন। এবং ধৈর্য ধরে কাজ করতে থাকুন। কারন আজ যারাই বড় বড় ইউটিউবার তার এক, দুইদিন, এক, দুইমাসে এত বড় পর্যায়ে আসে নাই। সবাই অনেক কষ্ট করে বছরের পর বছর কাজ করে এই পর্যায়ে এসেছে। সবার প্রতি শুভ কামনার রইল।


YouTube নিয়ে যারা কাজ করছেন তারা আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন। আমরা নিয়মিতভাবে Basic থেকে Advanced পর্যন্ত আলোচনা করব।


পোষ্টটি আপনার ফেসবুক ওয়াল, পেইজ বা Group এ শেয়ার করে সবাইকে দেখার সুযাগ করে দিন। আপনার কোন প্রশ্ন বা মতামত থাকলে কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। আমরা সবসময় আপনাদের মতামতের গুরুত্ব দিয়ে থাকি।



Please Subscribe our Technology Related YouTube Channel



Know About Author

Alamin Rahman

আমি আল আমিন রহমান, জন্মস্থান ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলায়। গৌরীপুর থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পড়াশোনা শেষ করেছি বিজ্ঞান বিভাগ থেকে। তারপর ঢাকার একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এ পড়াশোনা শেষ করেছি। ২০১০ সাল থেকে প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে বিভিন্ন সফটওয়্যার কোম্পানীতে চাকরী করার পাশাপাশি তৎকালীন oDesk বর্তমানে Upwork এ ডাটাবেস মেনেজমেন্ট সিস্টেম (DBMS) নিয়ে বিশ্বের অনেক দেশের কোম্পানীর সাথে দক্ষতার সাথে দীর্ঘদিন কাজ করেছি। বর্তমানে প্রফেশনাল অ্যামাজন এ্যাফিলিয়েটর হিসেবে অ্যামাজনে কাজ করছি, ইউটিউব কন্টেন্ট রাইটার হিসেবেও দক্ষতা রয়েছে। সেই সাথে সরকারী একটি প্রতিষ্ঠানে আইটি প্রফেশনাল হিসেবে চাকুরী জীবন শুরু করেছি ২০১৩ সাল থেকে।

2 thoughts to “YouTube Community Guideline কি ? বিস্তারিত আলোচনা”

  1. আমি অনেকদিন যাবত ইউটিউবে ভিডিও বানাই এবং কাজ করছি। কিন্তু ইউটিউব কমিউনিটি গাইডলাইন সম্পর্কে তেমন জানতাম না আজ জানলাম। ধন্যবাদ আপনাকে। আপনার ওয়েবসাইটাও ভাল।

    1. ধন্যবাদ আপনাকে। আমরা আপনাদের জন্যই নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছি। আশা করি সাথেই থাকবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

FEATURED ON : windows.com Android YouTube

copyright technologypart. All Rights Reserved. Technologypart registered trademark
Wordpress Hosting By Name Cheap Security Provided By Sucuri.