Skip to main content

কিভাবে Professional Video তৈরী করবেন?


একজন সফল YouTuber হতে হলে সবার আগে আপনার Video Create ভাল ও প্রফেশনাল মানের হতে হবে। একটা ভিডিও ভাল মানের নির্ভর করে দর্শকদের পছন্দ, আউটলাইনিং, ভিডিও সুটিং, ভিডিও এডিটিং ইত্যাদির উপর নির্ভর করে।

১. পরিকল্পনা ও রুপরেখা

Video Create করার প্রথম ধাপ হল Planning and Outstanding বা পরিকল্পনা ও রুপরেখা। সহজে বলতে গেলে, আপনি যে Video Topics নিয়ে ভিডিও বানাতে চান তার একটা রুপরেখা তৈরী করতে হবে।

how to make a video
Image by Technology Part

প্রথমে আপনি ভিডিও টপিকস সিলেক্ট করুন তারপর সেই ভিডিও টপিকস নিয়ে Script লিখতে হবে।

ভিডিও তৈরীর রুপরেখার কৌশল

Planning First 15 Second : আপনার ভিডিও’র প্রথম ১৫ সেকেন্ড খুব গুরুত্বপূর্ন কারন এই সময়টাই একজন দর্শক সবচেয়ে গুরুত্ব দিয়ে থাকে।

আপনার ভিডিও’র প্রথম ১৫ সেকেন্ডে আপনার পুরো ভিডিও’র একটা ধারনা দিতে চেষ্টা করুন। অনেকেই আছেন ভিডিও শুরুর দিকে তাদের চ্যানেলের Intro দিয়ে থাকেন। এই কাজটা কখনও করা যাবে না।

তাই প্রথম ১৫ সেকেন্ডের ভিতর আপনার ভিডিও টপিকস নিয়ে আপনার ভিউয়ারদের একটা ধারনা দিতে হবে।

Add Channel Intro : ১৫ সেকেন্ড পর আপনার চ্যানেলের ইন্ট্রো দিতে পারেন। তবে চ্যানেলের ইন্ট্রো যেন ৫ থেকে ১০ সেকেন্ডের বেশী লম্বা না হয়। কারন বড় ইন্ট্রো ভিউয়ারদের কাছে বিরক্তিকর হয়ে থাকে। তাই যত কম সময়ের ইন্ট্রো দিবেন ততই আপনার ভিডিও’র জন্য ভাল। আর চ্যানেলের ইন্ট্রো ইউনিক ও আনকমন হলে ভিউয়ার রা দেখতে সাচ্ছন্দবোদ করেন।

Outline Key Point : এবার আপনার ভিডিওতে আপনার ভিডিও টপিকস এর মেইন পয়েন্টগুলো নিয়ে আলোচনা করুন। যেমন : আপনি যদি ‘Best 5 Free Antivirus’ নিয়ে ভিডিও তৈরী করেন তাহলে আপনি ৫টি এন্ট্রিভাইরাস এর নাম প্রকাশ করুন। তাতে ভিউয়ারদের পুরো ভিডিওতে ধরে রাখতে সক্ষম হবেন। আর ত অবশ্যই ১০ থেকে ১৫ সেকেন্ডের মধ্যে যেন হয়।

Focus on Flow : ইউটিউবের বেশীর ভাগ দর্শকরা উদাসীন। বেশীভাগ ভিউয়ারদের এত ধৈর্য থাকে না পুরো ভিডিও দেখার। আপনি আপনার ভিডিওতে কথা বলার সময় অ্যা বা উ ইত্যাদি থাকে তাহলে ভিউয়াররা বিরক্ত হয়ে যাবে। তাই কথা বলার সময় Naturally বলতে চেষ্টা করুন।

how to make a video
Image by Technology Part

আপনার ভিডিও টপিকসের দিকে ফোকাস করুন। ভিডিও টপিকসের বাহিরে অযাজিত কোন কথা বার্তা বলা একেবাইরেই যাবে না। আপনি কথা বলার স্পিড যে খুব দ্রুত বা খুব স্লো না হয়। মোটকথা আপনি বাসায় বা অফিসে যে গতিতে কথা বলেন সেই রকম প্রাকৃতিক ভাবে কথা বলুন।

Start your Main Content : প্রথমে ১৫ সেকেন্ড, ইন্ট্রো ও আউটলাইন কী পয়েন্ট এর জন্য ৩০ থেকে ৫০ সেকেন্ড সময় দিতে পারেন। তারপরই আপনার মেইন টপিকস নিয়ে আলোচনা শুরু করুন। যেমন আপনার ভিডিও টপিকস যদি ‘Best 5 Free Antivirus’ হয়ে থাকে তাহলে আপনি ১ম এন্টি ভাইরাস থেকে ৫ম এন্টি ভাইরাস পর্যন্ত আলোচনা শেষ করুন।

Cal to Action : Finally আপনার ভিডিও শেষ হওয়ার পর আপনি শেষের অংশে আপনি আপনার ভিউয়ারদের Subscribe করার জন্য বলুন, কোন প্রশ্ন বা মতামতের জন্য কমেন্ট করতে বলুন। কিংবা ভিউয়ারদের জন্য কিছু প্রশ্ন রাখতে পারেন যার উত্তর কমেন্ট বক্সে দিবে। তাতে আপনার ভিডিও এনগেজমেন্ট ও বেড়ে যাবে। আপনার পরবর্তী বা পূর্বের কোন ভিডিও সম্পর্কে ৪-৫ সেকেন্ডে বলে দিতে পারেন।

how to make a video
Image by Technology Part

২. Video Shooting For YouTube

আপনার চ্যানেলের অবস্থান ও আপনার চ্যানেলের Video Topics যেমন গুরুত্বপূর্ন। ঠিক তেমনই গুরুত্বপূর্ন হল Video Shooting । আপনার ভিডিও সুটিং নিয়েও একটা পরিকল্পনা রাখতে হবে।

Video Shooting Tools

  • ভাল মানের একটা ক্যামেরা বা মোবাইল ফোন
  • কমপক্ষে ৫ ফিট উচ্চতার Trypod
  • ভাল লাইটিং সিস্টেম
  • Background Screen বা Green Screen
  • ভাল মানের মাইক্রোফোন

Video Shooting করতে আরো কিছু বিষয় আছে ভিডিও এঙ্গেল, ক্যামেরা ফ্রেম ইত্যাদি। তবে আমাদের দেশে অনেক ভাল মানের স্টুডিও পাওয়া যায় যেখানে ভাড়ার মাধ্যমে আপনি তাদের স্টুডিওতে ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন।

Camera Frame : Video Shooting ্ এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন বিষয় হল ক্যামেরা ফ্রেম। আপনি যদি একা ক্যামেরার সামনে সুটিং করে তাহলে আপনার ফেস টা প্রথমে ফোকাস করুন।

how to make a video
Image by Technology Part

যদি আপনি কোন প্রোডাক্ট নিয়ে ভিডিও করেন যেমন, রান্না রেসিপি, প্রোডাক্ট প্রমোশন ইত্যাদির ক্ষেত্রে আপনার প্রোডাক্টের উপর ফোকাস করুন।

Type of Shooting

how to make a video
Image by Technology Part

Wide Shot: ক্যামেরা ফ্রেম এ যদি একাদিক লোক থাকে তাহলে আপনার ফ্রেম ৩ ভাবে সুটিং করতে হবে। যেমন আপনি যদি কোন ইন্টারভিউ রিলেটেড ভিডিও সুটিং করেন তাহলে প্রথমে উপস্থাপকের ফ্রেম, অতিথি’র ফ্রেম এবং এক সাথে দুইজনের ফ্রেম এইভাবে সুটিং করতে হবে।

Medium Shot : মিডিয়াম সুটিং হল যারা Vlog টাইপের ভিডিও করেন তাদের জন্য। যেখানে কোন ফ্রেম নাই। আপনি আপনার ইচ্ছে মত ফ্রেম ধরে ভিডিও স্যুট করতে পারেন।

Close Shot : ক্লোজ শট হল আপনার ব্যাক্তিগত ভিডিও স্যুটিং এর জন্য। যেমন আপনি যদি লাইভ ভিডিও বা কোন স্পট সুটিং ইত্যাদির ক্ষেতে ক্লোজ সুটিং করতে হয়। যেমন, আপনি একটা আপেল বাগানের ভিডিও সুটিং করতে চান সেখানে প্রতিটি স্পটের ক্লোজ শট নিতে হয়।

Type of Lighting

Natural Lighting : যারা বাহিরে ঘুরে ঘুরে ভিডিও করেন। যেমন, ব্লগিং, ট্রাভেলিং ইত্যাদি ভিডিওতে আলাদা ভাবে লাইটিং এর তেমন প্রয়োজন হয় না। এছাড়া আপনার অফিস বা বাসায় যদি প্রর্যাপ্ত আলো থাকে মানে প্রাকৃতিক আলো তাহলে আর আলাদা লাইটিং এর প্রয়োজন হয় না।

Fluorescent : আপনার ভিডিও সুটিং এর লাইটিং করার জন্য Soft Box কিনি নিতে পারেন। অথবা আপনি বাসায় এই ধরনের সফট বক্স বানিয়ে নিতে পারেন। আর এই ধরনের লাইটিং বক্সের সামনে সাদা এক ধরনের কাপড় দিয়ে ডেকে দেওয়া থাকে।

LED Lighting : আজকাল খুবই কম খরচে আপনি সুটিং এর জন্য এলইডি লাইটিং সিস্টেম সহজেই বানাতে পারেন। বাজারে আপনার বাজেট অনুযায়ী বিভিন্ন ধরনের লাইট পাওয়া যায়।

Ring Lighting : যাদের বাজেট একটু ভাল তার রিং লাইটিং সিস্টেম বাজার থেকে কিনে নিতে পারেন। রিং লাইটিং সিস্টেম একটি কমপ্লিট লাইটিং সিস্টেম যার মধ্যে ট্রাইপড, মুভিং স্টেড সহ সব কিছু একটি প্যাকেজের মধ্যে পাওয়া যায়।

how to make a video
Image by Technology Part

Setting of Lighting System


আপনার ভিডিও সুটিং এর জন্য লাইটিং সিস্টেম আপনার পরিবেশ, স্থান ইত্যাদির উপর নির্ভর করে। নিচের ছবিটাতে সঠিক সেটিং টা দেওয়া হল।

how to make a video
Image by Technology Part

৩. YouTube Video Editing

আপনার ভিডিও নিয়ে প্ল্যানিং করেছেন। তারপর ভিডিও সুটিং ও করেছেন। এখন সময় সেই ভিডিওটা সুন্দর ভাবে এডিট করা। কারন একটা ভিডিও এডিটিং এর উপর ভিডিও’র সৌদর্য নির্ভর করে। এখন আপনাকে Video Editing উপর গুরুত্ব দিতে হবে।

সঠিক Video Editing Software সিলেক্ট করুন

Adobe Premiere : Video Editing Software এর রাজা বলা হয় এই সফটওয়্যারটিকে। বিশ্বের অনেক বড় বড় ইউটিউবার এডবি প্রিমিয়ার সফটওয়্যারটি ইউজ করে থাকে।

iMovie : যারা MAC অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করেন তাদের জন্য এটি ভিডিও এডিটিং এর জন্য অসাধারন একটি সফটওয়্যা। যার সাহায্যে খুব সহজেই আপনার ভিডিওটি এডিট করতে পারবেন।

Camtasia : সাধারন ইউজার বা যারা ভিডিও এডিটিং এ একেবারে নতুন তারা এই সফটওয়্যাটি ব্যবহার করতে পারেন।

Free Video Editing Software নিয়ে আমাদের এই পোষ্টটি দেখে নিতে পারেন।


Color Creation : আপনার ভিডিও’র জন্য স্ক্রিপট লিখেছেন, ভালভাবে লাইট সেটিং করেছেন, তারপর ভালভাবে সুটিং করেছেন। কিন্তু তারপরও আপনারকে ভিডিও এডিটং এর জন্য আপনার ভিডিও’র কালার ঠিক করতে হবে। যেমন, আপনি ভিডিও সুটিং করার সময় ভিডিওটার ব্রাইটনেস তেমন ভাল না। সেই ভিডিওটার ব্রাইটনেস এডিটিং এর মাধ্যমে বাড়াতে পারবেন।

how to make a video
Image by Technology Part

On Screen Graphics : আপনি যখন আপনার ভিডিওটি এডিট করবেন তখন আপনার ভিউয়ারদের বুঝার সুবিধার্থে আপনি কোন গ্রাফিক্স ছবি ব্যবহার করতে পারেন। আবার Arrow চিহ্ন, Circal চিহ্ন হত্যাদি ব্যবহার করতে পারেন।

how to make a video
Image by Technology Part

Angle Change : আপনি ভিডিও এটিং এর মাধ্যমে আপনার পজিশন পরিবর্বতন করতে পারেন। যেমন, আপনি মাঝে মাঝে সোজা, মাঝে মাঝে ডান পাশে আবার মাঝে মাঝে বাম পাশে আপনার পজিশন পরিবর্তন করে নিতে পারেন। যার ফলে আপনার ভিউয়ারদের একগেয়েমী ভাব চলে যাবে। এবং আপনার ভিউয়াররা আপনার পুরো ভিডিওটা দেখবে।

Remove Dead Air : আপনি যখন আপনার ভিডিও সুটিং করবেন তখন লক্ষ্য করবেন যে আপনার ভিডিও সাউন্ডে কিছু বাজে সাউন্ড বা নয়েজ রেকর্ড হয়। যেমন, হিসসস, হুসসস, সসসস ইত্যাদি। এই রকম সাউন্ড বা নয়েজগুলো আপনি ভিডিও এডিটিং এর মাধ্যমে রিমুভ করতে হবে।

Add Music : আপনার ভিডিও সাউন্ড এর সাথে ফ্রি মিউজিক এড করলে আপনার ভিডিওটার সাউন্ড আরো ভাল শুনাবে। তবে এড করা মিউজিক এর কারনে আপনার কথা শুনতে যে বিরক্তি না লাগে। তবে অবশ্যই সফট মিউজিক যেন হয়ে থাকে। তবে অবশ্যই যেন ফ্রি মিউজিক হয়ে থাকে। গুগুলে সার্চ করে অনেক ফ্রি মিউজিক পাওয়া যাবে।


৪. Cards

Cards হল YouTube Video’র জন্য একটি Interactive Element. যা আপনার ভিডিও রিলেটেড অন্য ভিডিও, প্লে লিস্ট বা অন্য কোন ওয়েবসাইট এখানে প্রচার করা যায়। আর তার মাধ্যমে আপনার ভিডিওতে এড করা Cards এর ভিজিটর বেড়ে যায়। তাই একটা ভিডিওতে Cards Add করা খুবই গুরুত্বপূর্ন।

how to make a video
Image by Technology Part

Use Cards to Promote New Videos

আপনার চ্যানেলের সবচেয়ে বেশী ভিউ হওয়া ভিডিওতে আপনার নতুন ভিডিওগুলো Cards হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। ততে আপনার নতুন ভিডিওগুলোর ভিউ আরো অনেক বেড়ে যাবে।


৫. End Screen

আপনার ভিডিও’র শেষের দিকে আপনি End Screen এ রিলেটেড অন্য ভিডিও ও সাবস্ক্রাইব বাটন ব্যবহারে আপনার রিলেটেড ভিডিওগুলোর ভিউ যেমন বাড়বে তেমন সাবস্ক্রাইববার বাড়বে।

how to make a video
Image by Technology Part

যখন আপনার কোন ভিউয়ার আপনার ভিডিও শেষ পর্যন্ত দেখবে তখন তার মধ্যে থেকে কিছু ভিউয়ার আপনার End Screen এর এড করা ভিডিওগুলোতে ক্লিক করবে আর তাতে আপনার চ্যানেলের Audience Engagement বেড়ে যাবে। আর যখন আপনার চ্যানেলের এনগেজমেন্ট বাড়বে তখন আপনার চ্যানেলে রেঙ্ক ও বেড়ে যাবে।

Subscribe Button : End Screen এ আপনি আপনার নিজের চ্যানেল বা অন্য কোন চ্যানেলের সাবস্ক্রাইব বাটন ইউজ করে তা প্রমোট করতে পারেন।

Video or Playlist : End Screen এ আপনি আপনার নিজের চ্যানেলের ভিডিও বা অন্য কোন চ্যানেলের ভিডিও এড করতে পারেন। ভিডিও Collaboration এর জন্য আপনি End Screen এর ভিডিও ইউজ করতে পারেন।

আপনি অন্য কোন চ্যানেলের ভিডিও End Screen এ ইউজ করবেন আর আপনার ভিডিও অন্য কোন চ্যানেলের End Screen এ ইউজ করে একে অপরকে সহযোগীতা করতে পারেন।

Channel Link : End Screen এর আপনি আপনার নিজের চ্যানেল লিংক বা অন্য কোন চ্যানেল লিংক ইউজ করতে পারেন।


আপনি যদি একজন প্রফেশনাল মানের ভিডিও তৈরী করতে চান তাহলে এই পোস্টটা আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ন। আশা করি এই পোস্টটা আপনার উপকারে আসবে।

আপনাদের প্রশ্ন বা মতামত থাকলে নিচে কমেন্ট বক্সে জানাতে ভুলবেন না। আমরা সব সময় আপনাদের প্রশ্ন ও মতামতের গুরুত্ব দিয়ে থাকি।





Please Subscribe our Technology Related YouTube Channel



6 thoughts to “কিভাবে Professional Video তৈরী করবেন?”

  1. নতুন ও পুরাতন ইউটিউবারদের জন্য অসাধারন লেখা। আপনাদের ওয়েবসাইটের প্রেমে পড়ে গেছি। পরবর্তী পোষ্টের অপেক্ষায় আছে। আপনাদের শুভ কামনা রইল।

    1. অনেক অনেক ধন্যবাদ মন্জুরুল কবির ভাই। পোষ্টটি শেয়ার করে আমাদের সাথেই থাকবেন।

    1. অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। পোষ্টটি শেয়ার করে আমাদের সাথেই থাকবেন আশা করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

FEATURED ON : windows.com Android YouTube

copyright technologypart. All Rights Reserved. Technologypart registered trademark
Wordpress Hosting By Name Cheap Security Provided By Sucuri.