Skip to main content

আপনার Computer Virus Protection করুন খুব সহজেই


আপনার PC বা Computer Virus Protection করা খুব যে সহজ একটি কাজ তা কিন্তু না। তবে একটু সতর্ক হলেই আপনার Computer কে ভাইরাস এর হাত থেকে রক্ষা করতে পারবেন।

হ্যাকার বা যারা নিয়মিত ভাইরাস নামক বস্তুটি বানায় তারা প্রতিনিয়ত এটি নিয়ে গবেষনা করে আর নতুন নতুন ভাইরাস তৈরী করে। আপনি কিংবা আপনার কম্পিউটারও যে কোন মূহুর্তে এই সব আক্রমনের শিকার হতে পারেন।

computer virus protection
Image by Technology Part

সম্প্রতি এফবিআই একটি কম্পিউটার স্ক্যাম সম্পর্কে সতর্ক করেছে যা প্রথমে টেলিফোন এর মাধ্যমে আপনার কম্পিউটারে ছড়িয়ে পড়ে। অবাক হয়েছেন ! টেলিফোনের মাধ্যমে কিভাবে ভাইরাস কম্পিউটারে ছড়ায় ? তাহলে জেনে নিন কিভাবে এই স্ক্যামাররা ভাইরাস ছাড়িয়ে থাকে।


প্রথম ধাপ : হ্যাকার রা বিভিন্ন নামি দামী সফটওয়্যার কোম্পানীর নামে আপনার কাছে টেলিফোন করে আপনাকে বিভিন্ন প্রমোশনাল অফার বা আপনাকে টেলিফোনে বলবে, ‘স্যার, আপনার জন্য আমাদের কোম্পানী থেকে একটা ফ্রি এন্টি ভাইরাস ১ বছরের জন্য দেওয়া হল। আপনার ইমেইল আইডিটা বলেন আপনি ডাউনলোড করে তা ইউজ করতে পারেন। যদি ভাল কাজ করে তাহলে আমাদের ইমেইল এ রিপ্লাই দিবেন স্যার’।

২য় ধাপ : তখন আপনি হয়ত আগ্রহী হবে কারন আপনাকে ফোন দেওয়া হবে দেশের নামি দামী সফটওয়্যার কোম্পানীর হবে। আর আপনি হয়ত আপনার ইমেইল আইডি দিয়ে দিবেন। তখন তথাকথিত সফটওয়্যার কোম্পানীর নামে আপনাকে ইমেইল কলা হবে।

৩য় ধাপ : যখনই আপনি ইমেইলে পাঠানো লিংকে ক্লিক করে সফটওয়্যারটা ডাউনলোড করবেন তখনই আপনার পুরো কম্পিউটারের নিয়ন্ত্রন হ্যাকাররা নিয়ে নিবে। আপনি কোন ফাইল আর ওপেন করতে পারবেন না। তারপরই আপনাকে আবার ইমেইল করা হবে। এবং আপনার সকল ফাইল ঠিক করতে বিট কয়েন চাওয়া হবে। এমন কি আপনার কম্পিউটারে যদি আপনার ব্যাংক একাউন্ট, ইমেইল পাসওয়ার্ড থাকে তাতেও তা হানা দিতে পারে।

উপরে সম্প্রতি ভাইরাস ছড়ানোর একটা মাত্র উপায় সংক্ষিপ্ত ভাবে আলোচনা করলাম। এই রকম অনেক মাধ্যম আছে যার মাধ্যমে আপনার পিসিতে সহজেই ভাইরাস ছড়াতে পারে। আর আপনার নিজের অজান্তেই আপনার ব্যক্তিগত ফাইলগুলো চলে যাচ্ছে স্ক্যামারদের হাতে।


১. Update Operating System

আপনার ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ চালাতে প্রথমেই প্রয়োজন আপনার পছন্দমত অপারেটিং সিস্টেম। যেমন, Windows, MAC, Linux, Ubuntu Operating System। আপনার পিসিতে দেখেবেন প্রতি সপ্তাহে বা মাসে আপনার অপারেটিং সিস্টেম আপডেট নিচ্ছে। অনেকেই সময়ের অভাবে সেই আপডেট দিতে চান না। বা আপডেট বন্ধ করে রাখেন। এই কাজটা কখনও করা যাবে না।

computer virus protection

আপনি যদি নিয়মিত ভাবে আপনার অপারেটিং সিস্টেমকে আপডেট রাখেন তাহলে আপডেট হওয়ার সময় অনেক ত্রুটিগুলো আপডেটের সাথে সাথে ফিক্স করে দেয় এবং আপনার Computer Virus Protection দেয়।


২. Antivirus Software ব্যবহার করুন

আপনার কম্পিউটারে অবশ্যই ভাল মানের এন্টি ভাইরাস ইউজ করেন। যদি বাজেট থাকে তাহলে আপনি ভাল মানের এন্টি ভাইরাস মার্কেট থেকে কিনে ব্যবহার করুন। যদি না কিনে ব্যবহার করতে চান তাহলে কিছু Best Free Antivirus আছে যা আপনি ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন।

computer virus protection

যা করা যাবে না

  • অনেকেই বেশী Computer Virus Protection দেওয়ার কথা চিন্তা করে একের অধিক এন্টি ভাইরাস ইন্সষ্টল করেন। একটি কম্পিউটারে যদি দুইটি এন্টি ভাইরাস ইন্সষ্টল করেন তাহলে একটি এন্টিভাইরাস আরেকটিকে ভাইরাস মনে করে। আর তাতে আপনার পিসি স্লো হয়ে যেতে পারে।
  • আবার অনেকেই পেইড এন্টি ভাইরাস অনলাইন থেকে বিভিন্ন ক্র্যাক ফাইলের মাধ্যমে একটিভ করেন। তাতে আপনি খাল কেটে কুমির ডেকে আনার মত। এতে আপনার পিসি আরো নিরাপত্তা ঝুকির মধ্যে পড়ে যাবে।

আপনি পেইড বা ফ্রি যে কোন এন্টি ভাইরাস ই ইউজ করেন না কেন তা নিয়মিত ভাবে ইন্টারনেটের মাধ্যমে আপডেট করতে হবে। সপ্তাহে অন্তত একবার আপনার এন্টি ভাইরাস আপডেট করে নিবেন। অথবা আপডেট এর অফলাইন ভার্সন পাওয়া যায় তা ডাউনলোড করে আপডেট করে নিতে পারেন।


৩. Don’t Click unknown Link

আপনার ইমেইল আসা কোন অপরিচিত ইমেইল কখনও খুলে দেখবেন না। এমনকি অপরিচিত ইমেইল দেওয়া কোন লিংক থাকলে তা কখনও ওপেন করা যাবে না। স্ক্র্যামাররা অনেক সময় আপনাকে কোন লোভনীয় অফার দিয়ে ইমেইল করবে তাদের ফাদে পা দেওয়া যাবে না।

computer virus protection

আপনার সোস্যাল মিডিয়া যেমন, ফেসবুক, টুইটার বা লিংকডিনে আসা ম্যাসেজে যদি কোন লিংক থাকে তা কখনও ক্লিক করে দেখা যাবে না।


৪. Backup Your Computer Data

আপনার Computer Virus Protection দেওয়ার জন্য আপনাকে নিয়মিত ভাবে আপনার গুরুত্বপূর্ন ডাটা ব্যকআপ রাখাটা জরুরী। অনেকেই এই কাজটা অলসতা করে করেন না। মানে ডাটা ব্যাকআপ রাখেন না। কিন্তু ডাটা যখন কোন সমস্যা তখন অনেকেই আপসোস করেন।

computer virus protection
Image by Technology Part

৩টি উপায়ে ডাটা ব্যাকআপ রাখতে পারেন।


১. External Hard Drive: আপনি Portable Hard Drive এ আপনার ডাটা ব্যাকআপ নিতে পারেন। বাজারে অনেক কোম্পানীর ভাল মানের পোট্রেবল হার্ডড্রাইভ পাওয়া যায়। আপনার ডাটা অনুযায়ী আপনি হার্ডডিস্ক কিনে নিতে পারেন।

২. Online Backup Service : পৃথিবীর অনেক কোম্পানী আছে যারা তাদের ডাটা সেন্টারের নির্দিষ্ট Space ভাড়া দিয়ে থাকে। যেমন আপনি 10 GB, 50 GB, 100GB হার্ডডিস্ক ভাড়া নিতে পারবেন। যে Space এ আপনি আপনার পছন্দমত ডাটা রাখতে পারবেন। এবং এর খরচ মাসিক বা বাৎসরিক হয়ে থাকে। এবং তা 5$ থেকে $100 পর্যন্ত হয়ে থাকে।

৩. Use Cloud Storage: আপনি আপনার ডাটা ব্যাকআপ রাখার জন্য ফ্রি বা পেইড ক্লাউড স্টোরেজ ইউজ করতে পারেন। যেমন : Google Drive, pCloud, MEGA, Media Fire ইত্যাদি ইউজ করতে পারেন। ফ্রিতে আপনি 5 GB থেকে 10 GB ইউজ করতে পারেন। আর পেইড হিসেবে $1 এ আপনি ১০০ জিবি স্টোরেজ পাবেন।


৫. Use Firewall

আপনার ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ এর Firewall সব সময় অন করে রাখুন। আপনি যদি আপনার Computer Virus Protection দিতে চান তাহলে অবশ্যই Firewall অন করে রাখবেন।

computer virus protection
Image by Technology Part

আর যদি আপনি উইন্ডোজ ব্যবহার করেন তাহলে আপনি select the Start button, and then select Settings  > Update & Security  > Windows Security > Firewall & network protection. Choose a network profile, and then under Windows Defender Firewall, switch the setting to On করে নিন।


৬. Use Strong Password

computer virus protection
Image by Technology Part

আপনার কম্পিউটার এ সব সময় শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন। আপনি যদি অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে উইন্ডোজ ব্যবহার করেন তাহলে দেখবেন Administrator নামে একটা অটোমেটিক ইউজার ক্রিয়েট হয়ে যায়। সেই ইউজারটি আপনি Rename করুন এবং তাতে আপনি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন।

computer virus protection
Image by Technology Part

আপনি This PC তে রাইট ক্লিক করুন Mange এ ক্লিক করুন তারপর যে উইন্ডোটা ওপেন হবে তা থেকে Local user and Group থেকে User এ ক্লিক করুন দেখেবেন এখানে Administrator নামে ইউজার থাকবে।

আপনি আপনার পিসিতে Strong Password ব্যবহার করবেন। Password টি শক্তিশালী করতে আপনি কমপক্ষে ৮ ডিজিটের পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন। আর পাসওয়ার্ড এ Uppercase, Numaric Digit and Simble ব্যবহার করুন।


৭. Use Latest Version Web browser

Web Browser একটি Virtual সফটওয়্যার। যার মাধ্যমে আমরা ওয়েবসাইট ভিজিট করি। ওয়েব ব্রাউজার একটি সাধারন সফটওয়্যারের মত। কিন্তু এই সাধারন সফটওয়্যারের সাহায্যে আমরা আমাদের সোস্যাল মিডিয়া একাউন্ট, ইমেইল একাউন্ট, ব্যাংক একাউন্ট সহ মূল্যবান সব কিছু ব্রাউজ করি। আর প্রত্যেক ব্রাউজারে পাসওয়ার্ড সেভ করে রাখার মত একটা অপশন আছে। আর এগুলো পুজি করে হ্যাকারা বিভিন্ন ইফেকটেড সাইট তৈরী করে। যখনই Effected সাইটগুলো আপনি ভিজিট করবেন তখন আপনার ব্রাউজারে সেভ থাকা পাসওয়ার্ড হ্যাকারদের কাছে চলে যায়।

computer virus protection
Image by Technology Part

আপনি আপনার ব্রাউজারের Setting অপশনে যান Privacy & Security থেকে আপনি আপনার Master Password হিসেবে একটা Strong Password ইউজ করেন।


৮. Use Anti Malware Software

আপনার Computer Virus Protection বা ম্যালওয়্যারের হাত থেকে রক্ষা করতে হলে আপনার কম্পিউটারে Anti Malware Software ব্যবহার করতে হবে। তার জন্য Malware bytes সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন।

computer virus protection
Image by Technology Part

এই সফটওয়্যারটি ফ্রিতে ডাউনলোড করে তা আপনার পিসিতে ইন্সষ্টল করে নিয়মিত স্কেন করুন।

আমাদের ওয়েবসাইট বা পোষ্ট নিয়ে কোন প্রশ্ন বা মতামত থাকলে নিচের কমেন্ট বক্সে আমাদের জানাতে পারেন। আমরা সবসময় আপনাদের প্রশ্নের উত্তর ও মতামতের গুরুত্ব দিয়ে থাকি।

আমাদের পোস্টটি আপনার সোস্যাল মিডিয়া পেইজে বা প্রোফাইলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।




Please Subscribe our Technology Related YouTube Channel



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

FEATURED ON : windows.com Android YouTube

copyright technologypart. All Rights Reserved. Technologypart registered trademark
Wordpress Hosting By Name Cheap Security Provided By Sucuri.